জুড়ীতে চা শ্রমিক খুনের মামলায় ৪ জন গ্রেফতার

বিশেষ প্রতিনিধিঃ জুড়ীতে বাগান শ্রমিক বদরী হত্যার মুল রহস্য ১০ ঘন্টা না পেরোতেই উদঘাটনে সক্ষম হয়েছে জুড়ী থানা পুলিশ। একই সাথে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ৪ জনকে আটক করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়।

নিহত বদরী গোয়ালা (৪০) সাগরনাল চা বাগানের শ্রমিক। তার বাড়ী বাগানের বড় লাইন এলাকায়। এলাকাবাসী জানান, বদরী গত শুক্রবার রাতে বাজার করে রাতে বাড়ীতে যান। রাত ৯ টার দিকে পরিবারের কাউকে কিছু না বলে বাইরে বের হন। পরে আর ফিরেননি। শনিবার সকালে স্থানীয় গাজীপুর সড়কের পাশে ধান ক্ষেতে তার লাশ পাওয়া যায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীরের সহযোগিতায় এবং জুড়ী থানার অফিসার্স ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদারের দিক-নির্দেশনায় ইন্স: (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম, এসআই মো: জাহাঙ্গীর আলম সঙ্গীয় ফোর্স সহ সাগরনাল গ্রামের রাজা রাম ভর (৩৮), সুজন ভর (২১), রনজিত ভর (২৪) ও দক্ষিন সাগরনাল এলাকার বাসিন্দা সাদেক মিয়া (৪৮) নামের ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার বিকেলে মৌলভীবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের ৬ নং আমলি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গ্রেফতার কৃতদের মধ্য রাজা রাম ভরও সুজন ভর হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা আদালতে স্বীকার করে। স্থানীয় চা বাগানের গরু চুরির অপবাদের প্রতিশোধ নিতে কয়েকজন মিলে শ্বাসরুদ্ধ করে বদরী গোয়ালা (৪০) কে হত্যা করা হয়। 

ওসি তদন্ত আমিনুল ইসলাম সেলিম জানান, ঘঠনার সাথে সাথে আমি একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি এবং নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করি।

এব্যাপারে জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, ঘঠনার সাথে সাথে আমি খবর পেয়ে জুড়ী থানা থেকে পুলিশ পাঠাই। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করি এবং তাৎক্ষণিকভাবে গোপনে ঘঠনার রহস্য উদঘাটন করে ১০ ঘন্টার মধ্যে জড়িত ৪ আসামীকে গ্রেপ্তার করে কোর্টে প্রেরণ করি।


No comments: