অনুমোদনের ৩দিনের মাথায় জুড়ী ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত

বিশেষ প্রতিনিধিঃ সম্মেলনের উনিশ মাস পর গত ১৩ নভেম্বর মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের ১৬সদস্যের কমিটি অনুমোদন করে জেলা ছাত্রলীগ। এর তিনদিনের মাথায় ১৫ নভেম্বর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উক্ত কমিটির সকল সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করে।

কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্রাচার্য স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, নবগঠিত কমিটির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় উক্ত কমিটির সকল সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হলো এবং অধিকতর তদন্তের জন্য মো: শাকিল ভূইয়া ও হায়দার মোহাম্মদ জিতুকে দিয়ে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করা হলো। উক্ত তদন্ত কমিটি আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।

এদিকে উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তি ফেসবুকে প্রকাশ হবার পর শুক্রবার রাতে স্থানীয় সংসদ সদস্য পরিবেশ, বন ও জলবায়ূ পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এর সমর্র্থনে ছাত্রলীগের একটি অংশ শহরে মিছিল করে। পরে নবগঠিত জুড়ী উপজেলা ও কলেজ কমিটির সদস্যবৃন্দ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে শহরে মিছিল বের করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিছিলটি কলেজ রোড থেকে ফেরার পথে কয়েকটি মোটর সাইকেল দ্রুতবেগে মিছিলের ভিতর ঢুকে পড়লে উভয়পক্ষে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় স্থানীয় জনমনে আতঙ্ক দেখা দেয়।

জানতে চাইলে নবগঠিত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: ফয়ছল আহমদ বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল চলাকালে আবু সাঈদ আরিফ, আল আমিন, মোহাইমিনসহ কয়েকজন মিছিলের উপর ৫/৬টি মোটর সাইকেল তুলে দেয়, এতে দু’জন ছাত্রলীগকর্মীর পা কেটে যায়। তিনি বলেন, অভিযোগকারী বা অভিযোগ সম্পর্কে আমরা অবগত নই। তবে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আমরা সুবিচার প্রত্যাশা করি।    

No comments: