জুড়ীতে দূর্গাপূজা ও ছুটির দিনে জমে উঠেছে শিল্প-পণ্য বানিজ্য মেলা

জুড়ী টাইমস সংবাদঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে জমে উঠেছে শিল্প-পণ্য ও বানিজ্য মেলা। মৌলভীবাজার সোসিও ইকোনোমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের উদ্যোগে ও সিলেট সোসিও ইকোনোমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন এর সার্বিক তত্বাবধানে জুড়ীতে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে আয়োজিত মেলায় শুক্রবার ছুটির দিনে ক্রেতা ও দর্শণার্থীদের ভিড় ছিল লক্ষণীয়। ছুটির দিন ও দূর্গাপূজা থাকায় শুক্র, শনি, রবি, সোম ও মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে মেলা প্রাঙ্গণ জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজ মাঠে আসতে শুরু করেন শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে সব বয়সের নারী পুরুষ। গত ২১ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া জুড়ী উপজেলার প্রথম শিল্প-পণ্য ও বানজ্যি মেলায় ক্রমেই ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মাসব্যাপী এ মেলায় ৬০টি স্টল ও ৬টি প্যাভিলিয়ননে বিক্রি হচ্ছে নানান ধরনের সামগ্রী। প্রথমদিকে মেলা জমলেও এখন ব্যাপক ক্রেতা সমাগম হওয়ায় বিক্রেতারাও খুশি। সম্প্রতি মেলা ঘুরে দেখা যায়, প্লাস্টিক পণ্য, মেয়েদের কসমেটিক্স, কাপড়ের দোকান, রান্নাঘরে ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন ধরনের কোকারীজ সামগ্রী, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য, মিষ্টান্নসহ ফাস্টফুড ও ভারী খাবারের দোকান রয়েছ মেলায়। মেলার সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে সব বয়সের মানুষের উপস্থিতি। ক্রেতা সমাগম একটু বেশি হয় সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে। মেলার বিশেষ আকর্ষণ প্রবেশদ্বারের সামনে অবস্থিত ‘মিউজিক ওয়াটার ড্যান্স’। এছাড়াও মেলায় রয়েছে ৬০ টি স্টল, ৬টি প্যাভিলিয়ন, দেশি-বিদেশি নানা ব্যান্ডের পণ্য সামগ্রী, ফুড কর্ণার, ছোট্ট সোনামণিদের জন্য অত্যাধুনিক শিশু পার্ক, ডিজিটাল নৌকা, নাগরদোলা, সুস্থ ধারার সার্কাস, ওয়াটার ডান্স, সার্বক্ষনিক বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা, আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মী, নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা, নামাজের স্থান, দর্শণীয় সদর প্রবেশদ্বার, অত্যাধুনিক টয়লেট ব্যবস্থা, গাড়ী পার্কিং সহ দর্শণার্থীদের জন্য সব ধরণের সুযোগ সুবিধার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ফলে মেলা শুরু হওয়ার পর থেকেই দর্শণার্থীরা তা উপভোগ করছেন। মেলায় নাগরদোলা, ট্রেন, হাতি, নৌকা সহ বিভিন্ন রাইডের ব্যবস্থা থাকায় শিশু-কিশোরদেরকে নিয়ে আসছেন অভিভাবকেরা। মেলায় আগত একাধিক ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা জানান, তারা টিকেট কিনে পর্যায়ক্রমে তাদের বাচ্চাদের আবদার মেটাচ্ছেন। মেলার পরিস্থিতি ও ক্রেতা সমাগম বেশি উল্লেখ করে মেলার এক পরিচালক বলেন, মেলায় ক্রেতা সমাগম বেশি এবং সার্বিক পরিস্থিতি ভালো। ওই পরিচালক আরও  জানান, মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপাজেলার প্রতিবন্ধীদের সাহায্যার্থে আয়োজিত শিল্প-পণ্য মেলার প্রবেশ টিকেটের উপর রয়েছে ‘র‌্যাফেল ড্র’। র‌্যাফেল ড্র তে প্রতিদিন রয়েছে টিভি, ফ্রিজ, মোটর সাইকেল, স্বর্ণের গহনা, ডিনার সেট, ক্রোকারিজ সামগ্রী সহ বহু জাতীয় গিফট সামগ্রী। আর মেলার র‌্যাফেল ড্র এর অর্থের একটি বৃহৎ অংশ প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে ব্যায় করা হবে। যা দিয়ে প্রতিবন্ধীদেরকে স্বাবলম্বী করা হবে।

No comments: