বালিয়াকান্দিতে ৪ জনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

রাজবাড়ী প্রতিনিধি:
আগামী ২৪ মার্চ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে একজন চেয়ারম্যান ও ৩ জন সরকারী চাকুরীজীবির বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্গণের অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার বিকালে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন- ২০১৯ এর সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা- ২০১৬ লঙ্গনের অভিযোগ দায়ের করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ আবুল কালাম আজাদ।

অভিযোগে বলেন, পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন- ২০১৯ এর আওতাভুক্ত নির্বাচনী এলাকায় অবস্থানরত ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল হোসেন খান। তিনি স্থানীয় সরকারের অধীনস্থ জনপ্রতিনিধি হয়েও এবং বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজের লাইব্রেরীয়ান মোঃ মাসুদ মিয়া, দর্শন বিভাগের প্রভাষক শেখ আব্দুল্লাহ আল জুবায়ের লিটন, মার্কেটিং বিভাগের প্রভাষক সঞ্জয় কুমার কুন্ডু সরকারী চাকুরীজীবি হয়েও বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচারনায় অংশগ্রহণ করে ভোটারদের প্রতি হুমকী, অশালীন মন্তব্য অব্যাহত রেখেছেন, যা কিনা জনমনে ভীতির সঞ্চার করছে। বিষয়টি একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের অন্তরায় এবং উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা- ২০১৬ এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে প্রতিয়মান হয়।

এ বিষয়ে ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন খানের মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

ইউএনও ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মাসুম রেজা বলেন, আচরণ বিধি লঙ্ঘন বিষয়ে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যে সুস্পষ্ট বক্তব্য দাখিলের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তিনি ব্যর্থ হলে তা অভিযোগ সত্য বলে পরিগণিত হবে ও উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ ও নির্বাচন কমিশনের কাছে তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজ্জুসহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হবে।

প্রসঙ্গত: ২৪ মার্চ বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মোট আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজন। চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ (নৌকা), এহসানুল হাকিম ওরফে সাধন (মোটর সাইকেল) ও আশরাফ মোল্লা (আম)। ভাইস চেয়ারম্যানদের (পুরুষ) মনিরুজ্জামান মনির (তালা), হারুন অর রশিদ (টিউবওয়েল) ও সনজিত রায় (চশমা)। এছাড়া দুইজন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকেই জরিমানা করা হয়েছে। তাঁরা হলো বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খোদেজা বেগম (হাস) ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মৌসুমী আক্তার (কলস)।

No comments: