জুড়ীর জায়ফরনগর ইউনিয়নে ভিজিএফের চাল বিতরনে দুর্নীতির অভিযোগ

জুড়ী প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার সদর জায়ফরনগর ইউনিয়নে ভিজিএফের চাল বিতরণে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার (১৮ আগস্ট) পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দুস্থদের মধ্যে ভিজিএফের চাল বিতরণকালে দুস্থ লোকজনকে ওজনে কম দেওয়া হয়। এ অভিযোগ পেয়ে সাথে সাথে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) অসীম চন্দ্র বণিক ঘটনাস্থলে যান এবং ঘটনার সত্যতা পেয়ে দুস্থদের অবশিষ্ট চাল ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেন। 

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দুস্থদের বিতরণের জন্য জায়ফরনগর ইউনিয়নে ৪৮ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ হয়। সে হিসাবে জায়ফরনগরে ২ হাজার ৪০০ জন লোক ২০ কেজি করে চাল পাওয়ার কথা। জায়ফরনগর ইউনিয়নে শনিবার সকাল থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়। শনিবার জায়ফরনগর ইউনিয়নে তিনটি ওয়ার্ডের দুস্থ লোকদের মধ্যে চাল বিতরণ করা হয়। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল ১১টার দিকে জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে চাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়। বেশ কিছু লোককে ২০ কেজির স্থলে ১৪, ১৫ ও ১৬ কেজি করে চাল দেওয়া হয়। এতে লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। খবর পেয়ে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অসীম চন্দ্র বণিক ঘটনাস্থলে যান। এ সময় তিনি চাল ওজন দিয়ে পরিমাণে কম দেখতে পান। এ অবস্থায় তিনি জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মিলাদ চৌধুরীসহ অন্যান্য সদস্যদের ডেকে ওজনে কম পাওয়া লোকদের অবশিষ্ট চাল ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেন। এর পর চাল ফেরত পেলে লোকজন বাড়ি ফিরে যান। সব লোকজন চাল ফেরত না পাওয়া পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসীম চন্দ্র বণিক জায়ফরনগর ইউনিয়ন কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করেন। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসীম চন্দ্র বণিক বলেন, কিছু লোকজনের চাল ওজন দিয়ে দেখি ২০ কেজির জায়গায় ১৫/১৬ কেজি করে দেয়া হয়েছে। তাই, অবশিষ্ট চাল ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে ফেরত দিতে বলি। ভবিষ্যতে আর এ ধরনের কাজ যাতে তারা না করে, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।’

জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য মিলাদ চৌধুরী বলেন, এ ঘটনাটি ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে ঘটানো হয়েছে। আমরা প্রত্যেককে ওজনে ২০ কেজি করেই চাল দিয়েছি। পরে কিছু লোকের ইন্ধনে তাঁরা বাইরে গিয়ে চাল কমিয়ে এনে আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেন।’ 

No comments: