বালিয়াকান্দিতে স্বর্ন ব্যবসায়ীর ব্যাংক চেক প্রতারনার অভিযোগ

রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর বাজারের দীপ্তি জুয়েলার্সের মালিক প্রকাশ চন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে ৫০ হাজার টাকার চেক প্রতারনার অভিযোগ উঠেছে। সোনালী ব্যাংক বহরপুর শাখা ব্যবস্থাপক মো: মোশারফ হোসেন চেকের মালিকের হিসাবের বিপরীতে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় চেকটি ফেরত প্রদান করেন।
৫০ হাজার টাকার পাওনাদার চেক বহনকারী ও শালমারা নিশ্চন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনজিত কুমার পাল জানান, ২০১২ সালে তার নিকট হতে ব্যবসায়িক কাজে ১ লক্ষ টাকা ধার নেয় বহরপুর বাজারের স্বর্ন ব্যবসায়ী প্রকাশ চন্দ্র সরকার। দীর্ঘ কয়েক বছর পেরিয়ে গেলেও টাকা পরিশোধ করতে গরিমসি করে। অবশেষে ১লা জুলাই রাতে বহরপুর বাজারে আওয়ামী লীগের আঞ্চলিক অফিসে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান মাষ্টারের সভাপতিত্বে এক শালিশে তাৎক্ষনিক ভাবে ৫০ হাজার টাকা পরিশোধের আপোষ নিষ্পত্তি হয়ে যায়। নগদ টাকা পরিশোধে প্রকাশ ব্যর্থ হয়ে প্রকাশ তার নিজ ব্যাংক হিসাব হতে রনজিত কুমার পালের নামে সোনালী ব্যাংক বহরপুর শাখার ৫০ হাজার টাকার একটি চেক প্রদান করেন। যাহার চেক নং ৫৪৬৩১৮০ তাং ২ জুলাই। চেক প্রদানের সময় উপস্থিত শালিশদার একাধিকভাবে ব্যাংকে টাকা আছে কিনা থাকলে দিও নইলে দিও না। নিদিষ্ট দিনে সে ব্যাংকে চেকের টাকা তুলতে গেলে এই হিসাবে টাকা নেই বলে সাফ জানিয়ে দেয় ক্যাশিয়ার। বিষয়টি সে ব্যবস্থাপকের নিকট খুলে বলার সময় হান্নান স্যার উপস্থিত থাকায় তাৎক্ষনিকভাবে চেকটি অপর্যাপ্ত তহবিলের কারনে চেকটি লিখিতভাবে ফেরৎ দেওয়া হয়।
জুয়েলার্স মালিক প্রকাশ কুমার সরকারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে সে ব্যাংকের অফিসার ইদ্রিস আলী ফকিরকে মোবাইলটি ধরিয়ে দিলে তিনি জানান ব্যাংকে টাকা জমা হয়েছে।


Source: Online

No comments: