ফুটবলারদের উদ্ধারে স্পেসএক্স সিইওর সাবমেরিন

থাইল্যান্ডে গুহায় আটকে থাকা অবশিষ্ট পাঁচ খুদে ফুটবলার উদ্ধারে প্রয়োজন হলে মিনি সাবমেরিন দেবেন বলে জানিয়েছেন আমেরিকান স্পেসএক্স’র প্রধান নির্বাহী (সিইও) এলোন মাস্ক।
সোমবার (০৯ জুলাই) দ্বিতীয় দিনের অভিযানের সময় এবং মঙ্গলবার (১০ জুলাই) সকালে থাম লুয়াং গুহা এলাকা পরিদর্শন শেষে তার নিজস্ব টুইট আইডিতে সাবমেরিন দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি টুইটে লিখেছেন, এখনই থাই গুহা থেকে ফিরেছি। অবশিষ্ট পাঁচ কিশোরকে উদ্ধারে যদি প্রয়োজন হয় তার জন্য মিনি সাবমেরিন প্রস্তুত করে রেখেছি। সাবমেরিনটি রকেটের যন্ত্রপাতি দিয়ে তৈরি।
এটি মানুষ পরিবহনে সক্ষম এবং ওই প্লাবিত গুহায় যেখানে কিশোররা আটকে আছে, সেখানে যেতে পারবে। এছাড়া ভবিষ্যতে এমন উদ্ধার অভিযানের ক্ষেত্রে এটি ব্যবহারে খুব কাজে আসতে পারে।
শেষে থাইল্যান্ড অনেক সুন্দর বলেও উল্লেখ করেছেন এই স্পেসএক্স কর্ণধার। বিশ্বজুড়ে তোলপাড় চলছে থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলের গুহায় আটকে থাকা ১২ টিনএজ ফুটবলার ও তাদের ২৫ বছর বয়সী কোচকে নিয়ে। বিশেষজ্ঞরা তাদের উদ্ধারে বিভিন্ন পরামর্শও দিচ্ছেন। সঙ্গে কোনো রকমের সহায়তা লাগলে দাও দিতে বলছেন অনেকেই।
এদিকে, দুইদিনের উদ্ধার তৎপরতায় কোচসহ যে আটজনকে গুহা থেকে নিরাপদে বের করে আনা হয়েছে তার জন্য ব্রিটিশ ও থাই ডুবুরি দলের দক্ষতার প্রশংসাও করছেন গোটা বিশ্বের অনেক বিশেষজ্ঞ।
গুহায় আটকে থাকা অবশিষ্টি পাঁচ কিশোরকে উদ্ধারে মঙ্গলবার তৃতীয় দিনের মতো অভিযান চালাবে এ যৌথ ডুবুরি বাহিনী।
গত ২৩ জুন বার্ষিক ভ্রমণে থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলে পাহাড়ি এলাকায় গিয়ে হারিয়ে যায় ১১-১৬ বছর বয়সী ১২ ফুটবলার ও তাদের কোচ। পরে ২ জুলাই উত্তরাঞ্চলের চিয়াং রাই প্রদেশের থাম লুয়াং গুহায় তাদের সন্ধান পায় ব্রিটিশ ও থাই ডুবুরি দল। রোববার (০৮ জুলাই) স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে শুরু হয় উদ্ধার অভিযান।
কোচসহ চারজনকে উদ্ধার করে রাত ৯টায় তা স্থগিত ঘোষণা করা হয়। ভেতরে রয়ে গিয়েছিল আরও নয় কিশোর। এরপর সোমবার সকাল ১১টা থেকে আবারও উদ্ধার অভিযানে নামে যৌথ ডুবুরি দল। পরে চারজন উদ্ধার করে আপাতত অভিযান স্থগিত করে। এখন বাকি পাঁচ টিনএজকে উদ্ধার করতে আবারও অভিযানে নামবে এ বাহিনী।

No comments: