বালিয়াকান্দিতে খাস জমি উদ্ধারে তৎপর এসিল্যান্ড


রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তায়েব-উর রহমান আশিক যোগদানের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় সোয়া কোটি টাকা মূল্যের সরকারী খাস জমি অবৈধ দখল মুক্ত করেছেন। সোমবার (২৫ জুন) উপজেলা ভূমি অফিস কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানাগেছে।


উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তায়েব-উর রহমান আশিক জানান, রবিবার উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের রামদিয়া বাজারে ১২৩ নং দাগে ২শতাংশ খাস জমি পাওয়া যায়। জমিতে একটি মিষ্টির দোকান ও একজন ম্যারেজ রেজিষ্টারের চেম্বার। দুইজন অবৈধ দখলদারকে ৭দিনের মধ্যে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে অথবা একসনা বন্দোবস্ত নেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। দুই শতাংশ জমির মুল্যে প্রায় ৫লক্ষ টাকা।
অপরদিকে ইসলামপুর ইউনিয়নের বাড়াদী মৌজার বিএস ৩৪৬ নং দাগের ৩০ শতাংশ জমি জমারত মহুরীর ছেলে হাবিবুর রহমান ভোগদখল করে রেখেছিল। ওই জমিটি অবৈধ দখলমুক্ত করা হয়। জমিটির মুল্যে ১৪ লক্ষ টাকা।

তিনি মনে করেন সরকারী স্বার্থ সবার আগে। এক্ষেত্রে যদি কেউ সরকারী সম্পত্তি অবৈধ দখল, ক্রয়-বিক্রয় সম্পর্কিত কোন তথ্য জেনে থাকেন তাহলে আমাকে জানান। এক্ষেত্রে তথ্য দাতার নাম, ঠিকানা গোপন রাখা হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা। তিনি এ অভিযান আরও প্রসারিত করতে সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাসুম রেজা বলেন, বালিয়াকান্দি উপজেলাতে নিয়মিত সহকারী কমিশনার (ভূমি) না থাকার কারণে ভূমি ব্যবস্থাপনা চরম একটি অনিয়ম ছিল এবং সরকারী স্বার্থ রক্ষার প্রয়াস অতোটা জোরদার ছিল না। কিন্তু তায়েব-উর রহমান যোগদানের পর থেকেই খাস জমি উদ্ধার এবং সরকারী স্বার্থ অক্ষুন্ন রাখার যে কর্ম তৎপরতা চালিয়েছে তাতে আমরা প্রায় কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার করতে পেরেছি। অতীতের যে কোন সময়ের থেকেই এটি উল্লেখ করার মতো। সরকারী সম্পদ রক্ষায় প্রশাসন সবসময়ই তৎপর আছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত: সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তায়েব-উর রহমান আশিক বালিয়াকান্দিতে ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসের ৮ তারিখে যোগদান করেন। এ পর্যন্ত প্রায় সোয়া কোটি টাকা মুল্যের জমি উদ্ধার করেছেন। ইতোমধ্যেই উদ্ধারকৃত ৯২ শতাংশ খাস পুকুর উদ্ধার করে ইজারা প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন।

No comments: