হাকালুকি হাওরের করচের তেল দিয়ে হবে জৈব জ্বালানি

এ.বি.এম নূরুল হকঃ দেশের বৃহত্তম হাওর হাকালুকির করচের তেল জৈব জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে বলে রিপোর্ট দিয়েছে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা কাউন্সিল। জৈব জ্বালানির আরেক কাঁচামাল জ্যাট্রোফার চেয়ে এটি গুনে-মানে উত্তম বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। করচ ঘন  ডাল পালা সমৃদ্ধ পরিবারের উপ-পরিবারের একটি উদ্ভিদ।এর রয়েছে বহুবিদ গুনাগুন। সম্প্রতি এর নানামূখী কার্যকারিতা নিয়ে গবেষণা করছেন পরিবেশ অধিদপ্তর‘‘উপকুলীয় ও জীব বৈচিত্র  ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের’’ উদ্যান সম্প্রসারণ র্কমর্কতা আব্দুর মানেক। ইতোমধ্যে তিনি করচ বীজ থেকে তেল আহরণ করতে সক্ষম হয়েছেন। এটি পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য বাংলাদেশ শিল্প গবেষণা কাউন্সিলে প্রেরন করা হয়েছে। উপকুলীয় ও জীব বৈচিত্র ব্যবস্থাপনা প্রকল্প উদ্যান সম্প্রসারন র্কমর্কতা ও করচ বীজ থেকে তেল উদ্ভাবক আব্দুল মানেক জানান,গবেষনালব্দ ফলাফলে করচের তেল জৈব জ্বালানির কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। জৈব জ্বালানির আরেক কাঁচামাল জ্যাট্রোফার চেয়ে এটি গুনে-মানে উত্তম। করচের খৈলে নাইট্রোজেন, ফসফরাস এবং পটাসিয়ামের পরিমান যতাক্রমে  শতকরা ৩.৫,০.৩৮,১.৯৮ ভাগ। এছাড়া অন্যান্য উপাদানগুলো অধিক ও যথেষ্ট। তাই এটিকে অন্যান্য খৈইলের মত উত্তম জৈব সার হিসেবে জমিতে ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া করচের খৈইলের মধ্যে প্রোটিন ও কার্বোহাইড্রেট পাওয়া গেছে, যথাক্রমে শতকরা ২১.৯২,ও ২৫.৭৪ ভাগ। তাই এটি পোল্ট্রি ফিডের উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে, এটি নিয়ে আরো ব্যাপক গবেষণার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলেও তিনি জানান।

No comments: