জুড়ীতে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল

বিশেষ প্রতিনিধিঃ দেশে আজ গনতন্ত্র নেই। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছিলেন স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা এবং বাংলাদেশের সফল একজন রাষ্ট্রনায়ক। সরকার একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। শেখ হাসিনা বিগত দিনে ভোটার বিহীন একটি প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে যে সরকার গঠন করেছে সেই সরকারের কথামতো বিচার বিভাগ পার্শ্ববর্তী দেশের পরিকল্পনা অনুযায়ী দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আমার মা-আমাদের মাকে বন্ধি রেখে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করছে তা কিছুতেই মেনে নিতে পারিনা এবং দেশবাসীও মেনে নেয়নি। ২৬ মার্চ বিকেলে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা বিএনপির আয়োজনে অনুষ্ঠিত এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শেষে পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন আহমদ মিঠু। 

উপজেলা বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম শামীমের সভাপতিত্বে ও ছাত্রদল নেতা মোজাহিদুল ইসলাম জয়দুলের সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি লিয়াকত আলী, হাজী হেলাল উদ্দিন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক দেওয়ান আইনুল হক মিনু, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান আসকর, দপ্তর সম্পাদক মোঃ জঈন উদ্দিন, বিএনপি নেতা শাহিন আহমদ রুলন, ওয়াছির উদ্দিন আহমদ কয়ছর, উপজেলা যুবদল নেতা হারিস মোহাম্মদ, আসাদুজ্জামান খান মোবারক, উপজেলা শ্রমিকদলের সাধারন সম্পাদক মোস্তাকিম আলী, উপজেলা কৃষক দলের সাধারন সম্পাদক হাজী আব্দুল কাইয়ুম, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি নিপার রেজা, ছাত্রদল নেতা হাজী সোহেল আহমদ, আব্দুল্লাহ প্রমূখসহ বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাসির উদ্দিন আহম মিঠু আরো বলেন, হাজার বছরের শোষণ, বঞ্চনা ও পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে ১৯৭১ সালের এদিনে চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে সেনাবাহিনীর তৎকালীন মেজর জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা দিয়ে হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু করেছিলেন। ইতিহাসের পৃষ্ঠা রক্তে রাঙিয়ে, আত্মত্যাগের অতুলনীয় দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে সেদিন থেকে দীর্ঘ ৯ মাসের যুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হয় আমাদের জাতীয় স্বাধীনতার চূড়ান্ত পরিণতি। সেই রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের গৌরব ও অহঙ্কারের মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর দিন আজ। 

No comments: