ভোরের কাগজের ২৭ বছরে পদার্পণ : উৎসব মুখর উদযাপন

জুড়ী টাইমস সংবাদঃ মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে ভোরের কাগজের পথচলা শুরু। সেই চেতনায় অবিচল থেকে নানা ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে ২৭ বছরে পদার্পণ করল মুক্তপ্রাণের প্রতিধ্বনি ভোরের কাগজ। ২৬ বছর আগে যাত্রা শুরুর এই দিনটিতে গতকাল বৃহস্পতিবার উৎসব আনন্দে মেতে উঠেছিল দেশের শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্র ভোরের কাগজ পরিবার। এ আনন্দে শরিক হতে এসেছিলেন পাঠক, লেখক, বিজ্ঞাপনদাতাসহ শুভানুধ্যায়ীরাও। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ব্যবসায়ী, বিভিন্ন সংস্থা, কবি-লেখক-সাহিত্যিকসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ।

সবার সরব পদচারণায় গতকাল যেন উচ্ছ¡সিত শত প্রাণের মিলন মেলায় পরিণত হয় ভোরের কাগজ কার্যালয়। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আগের রাত থেকেই বর্ণিল সাজে সাজানো হয় কার্যালয়টি। ভেতর ও বাইরে নানা রঙের বেলুন-প্ল্যাকার্ড ঝুলানো হয়। দুপুরে পত্রিকাটির প্রধান কার্যালয়ে বিশাল কেক কেটে কর্মসূচির সূচনা করেন সম্পাদক শ্যামল দত্ত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভোরের কাগজের বার্তা সম্পাদক ইখতিয়ার উদ্দিন, প্রধান প্রতিবেদক আখতারুজ্জামান লাবলু, প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা ও অর্থ ব্যবস্থাপক আবদুল করিম সোহাগ, বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপক এস এম এ রাজ্জাক, প্রশাসনিক ব্যবস্থাপক সুজন নন্দী মজুমদার, সার্কুলেশন ইনচার্জ তসলিম চৌধুরীসহ সব পর্যায়ের কর্মীরা। এ সময় এক আনন্দ ঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। ১৯৯২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রথম প্রকাশিত হয় ভোরের কাগজ। শুরু থেকেই পত্রিকাটি পাঠকদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়। বর্তমানে দেশের অন্যতম পাঠকপ্রিয় পত্রিকা এটি। সাংবাদিকতায় বস্তুনিষ্ঠ ও আপসহীন অবস্থানের কারণে পাঠকের কাছে ভোরের কাগজের আলাদা মর্যাদা আছে।

ভোরের কাগজের ২৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে গতকাল শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিলেন অনেকেই। বেলা ১১টার পর থেকে সম্পাদক শ্যামল দত্তের হাতে নানা রঙের ফুল, কেক ও মিষ্টি দিয়ে শুভেচ্ছা জানান তারা। নানা শ্রেণিপেশার মানুষের পাশাপাশি শুভেচ্ছা জানাতে আসেন পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের উপমহাপরিদর্শক (মিডিয়া) আবদুল আলী মাহমুদ, সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) সহেলী ফেরদৌস, জনসংযোগ কর্মকর্তা (পিআরও) কামরুল আহসান, র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক মেজর মেহেদী, আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক (বিমান) মো. নূরুল ইসলাম, সহকারী পরিচালক (নৌ) রাশেদুল আলম খান ও সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) সাঈদা তাপসী রাবেয়া লোপা, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিম, ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজের নির্বাহী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশন) হুমায়ুন কবীর কবি, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের এভিপি এন্ড হেড অব পিআর জালাল আহমেদ, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের এসপিও ওয়াহিদ মুরাদ, গ্লোব ফার্মা গ্রুপের মিডিয়া এক্সিকিউটিভ সাব্বির আহমেদ, জনতা ব্যাংকের উপমহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মঈনুদ্দিন মিয়া ও এজিএম এস এম জাহাঙ্গীর আলম, ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র অফিসার শেখ মো. রিয়াজ উদ্দিন, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের এসিস্টেন্ট জেনারেল ম্যানেজার কে এম জিয়াউল হক, প্রাইম ব্যাংকের হেড অব মার্কেটিং মনিরুজ্জামান টিপু, সাউথইস্ট ব্যাংকের ম্যানেজার সেলিম আহসান, এনেক্স কমিউনিকেশন্স লিমিটেডের পরিচালক আজাদ হোসেন, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইসতিয়াক হোসেন ও উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইয়াকুব আলী, রুপায়ন গ্রুপের মিডিয়া ম্যানেজার মেহেদী হাসান, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের জনসংযোগ কর্মকর্তা আমির হোসেন জনি, ফরথট পিআর লিমিটেডের ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি (মিডিয়া রিলেশন্স) এস এম রাহাত মাহমুদ, ঢাকা সংবাদপত্র বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি মো. মোস্তফা কামাল, সার্কুলেশন ম্যানেজার আবুল কালাম, সহসভাপতি মোতালেব খান ও পরিচালক ইউসুফ হোসেন প্রমুখ। তারা প্রত্যেকেই ভোরের কাগজের অব্যহত অগ্রযাত্রা ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।

No comments: