ব্যাতিক্রমী এক জনপ্রতিনিধি জমির আলী

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ যেখানে রাস্তা নেই অথবা রাস্তার সমস্যার কারনে এলাকাবাসী ও স্কুল-কলেজে যাতায়াতে শিক্ষার্থীরা দূর্ভোগে পতিত হয় সেখানেই তিনি ড্রেজার নিয়ে হাজির হন। এলাকাবাসীকে ডেকে নিজ খরছে রাস্তা তৈরীর কাজে লেগে পড়েন। নিজ তদারকিতে দিবা রাত্র রাস্তার কাজ করেন তিনি। এজন্য এলাকাবাসী থেকে কোন বাহবা কিংবা অন্য কোন সুবিধা আশা করেননা তিনি। ব্যাতিক্রমী এ জনপ্রতিনিধি হলেন মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ জমির আলী। 

তিনি তার নিজ নির্বাচনি এলাকা ইউসুফনগর, শিমুলতলা, নয়াগ্রাম ও উত্তর নয়াগ্রাম এর পাশাপাশি অত্র ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের রাস্তাঘাটের উন্নয়নে ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন আপন গতিতে। পেশায় তিনি একজন ব্যবসায়ী। তার বিভিন্ন ব্যবসায় উপার্জিত অর্থের বেশির ভাগই তিনি জনকল্যাণে ব্যায় করার ব্রতি নিয়েছেন। 

সরেজমিনে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে গিয়ে দেখা যায় জায়ফরনগর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড বেলাগাওঁ গ্রামের কাঠানালার পাড় এলাকায় জমির আলী একটি রাস্তার নির্মান কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। চালক তার ড্রেজার দিয়ে অনবরত মাটি কেটে রাস্তায় ফেলছেন আর জমির মেম্বার এলাকার উৎসুক জনতার পাশে দাড়িয়ে কাজ তদারকি করছেন। ওই স্থানে উপস্থিত মেম্বারের সাথে সার্বক্ষনিক সঙ্গদানকারি মোঃ রুশন আলী, বেলাগাওঁ গ্রামের (বড়বাড়ীর) সাইফুল ইসলাম, একই গ্রামের নোয়াব আলী, ফরিদ আলী, আব্দুল লতিফ, হেলাল আহমদ, আবুল কাসেম, তাহের আলী ও আবু মিয়া বলেন, আমরা জমির ভাইয়ের কাজে খুবই খুশি হয়েছি। আমরা তার জন্য দোয়া করছি যাতে তিনি এই ভাবে মানুষের সমস্যা দুর করতে পারেন। 

এই প্রতিনিধির সাথে আলাপচারিতায় জমির মেম্বারের কাছ থেকে জানাযায়, গত ইউপি নির্বাচনে প্রথম বারের মত অংশগ্রহন করেই জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ায় তার মনে মানবকল্যাণের চিন্তা জাগ্রত হয় আর সেই থেকেই তিনি ভাবেন কিভাবে অসহায় দারিদ্রপিড়িত মানুষের পাশে দাড়ানো যায়। তখন থেকেই তিনি রাস্তাঘাট ও শিক্ষার্থীদের সংকট নিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেন। এজন্য অনেক অর্থের প্রয়োজন তাই তিনি মনে মনে সংকল্প করেন তার প্রতিটি ব্যবসা থেকে উপার্জিত অর্থের সিংহ ভাগই তিনি বরাদ্ধ করবেন। 

যেই ভাবনা সেই কাজ, ধীরে ধীরে তিনি ঝুকে পড়েন মানব সেবার এ মহান কাজে। তার এই নিস্বার্থ কাজের বিরল দৃষ্টান্ত তিনি নিজেই। আমাদের সমাজে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের স্বার্থ ছাড়া কোন কাজ করতে দেখা যায়না সেই ক্ষেত্রে জমির আলী মেম্বার ব্যাতিক্রম। 

জমির আলী জুড়ী টাইমস-কে বলেন, সরকারি বরাদ্ধের পাশাপাশি আমাদের এই বন্যা কবলিত অঞ্চলের মানুষের দুর্ভোগ দুর্দশা কমাতে আমি নিজ উদ্যোগেই শুরু করেছি এসব কাজ। আমি প্রত্যাশা করছি সরকারি উন্নয়ন বরাদ্ধের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে এসে স্ব-উদ্যোগে এসব কাজ করলে নিজ নিজ এলাকার রাস্তাঘাট ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তথা শিক্ষার্থীদের কোন সংকটই আর থাকবেনা। মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন করলে পরকালে স্রষ্টা এর প্রতিদান দিবেন আর দুনিয়াতেও এর সুফল পাওয়া যাবে। এগিয়ে যাবে দেশ, এগিয়ে যাবে মানুষ। এটাই আমার কামনা। 

No comments: