সাংবাদিকদের নিয়ে ফ্রান্স প্রবাসী মোহাম্মদ সুলতান আহমদের কবিতা

আব্দুস সবুরঃ এবার সাংবাদিকদের নিয়ে কবিতা লিখেছেন ফ্রান্স প্রবাসী কলামিস্ট ও ক্ষুদে কবি মোহাম্মদ সুলতান আহমদ। সুলতান'র বাড়ী মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার ২নং পূর্ব-জুড়ী ইউনিয়নের বড় ধামাই গ্রামে। শিক্ষাগত দিকদিয়ে তিনি গোয়ালবাড়ী হাজী ইনজাদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি, সিলেট সরকারী কলেজ থেকে এইচ.এস.সি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়,ঢাকা থেকে (রাষ্ট্র বিজ্ঞান) এম.এ পাস করেন। পরে উচ্চ-শিক্ষার জন্য যাত্রা করেন লন্ডনের উদ্দ্যেশে সেখানে তিনি সাসেক্সকলেজ থেকে ডিপ্লোমা ইন বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, ইউনিভার্সিটি অফ লন্ডন থেকে ডিপ্লোমা ইন ইংলিশ প্রপিসিয়েনসি অর্জন করে আবারও যাত্রা করেন ফ্রান্সের উদ্দ্যেশে এবং সেখান থেকে (ডিপ্লোমা দু লং ফ্রান্সে) কলেজ পিয়ের, সিমার্ড, ফ্রান্স এবং সেন্টার ইন্টারন্যাশনাল দা ইটুদে পেডাগজিক। (ইউনিভার্সিটি অফ কেমব্রিজ ) ফ্রান্স থেকে ২০১৪ সালে (টি.সি.এফ.নিব বে আ) অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি ২০০৩ সালে ‘স্বর্গীয় ভূবন’ নামে একটা উপন্যাস বই ও লিখেছেন।
 
[সাংবাদিকদের নিয়ে কবিতাটি লেখার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা মাত্র] 
“সাংবাদিক” 
মোহাম্মদ সুলতান আহমদ 
 
খবরের খুঁজে ঝড় বৃষ্টির মাঝে, লড়ছে যে জন দিবানিশি। ব্যাথা ভরা বুকে, কাটা ভরা পথে , চলছে যেজন মিলেমিশি। সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
পুলিশের গুলি জনতার বুলি , করেছে যাকে নিস্ব । মাথার ঘাম পায়ে ঝরিয়ে, ঘুরেছে যে জন এ বিশ্ব । সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
 কেউবা নেশায়, কেউবা সেবায়, জীবন দিতে রাজি এ পেশায় । কাউকে হাসায়, কাউকে কাঁদায়, অপবাদের বোঝা নিয়েই মাথায়। এই মহান পেশায় লড়ছে যারা । সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
যুদ্ধ কিংবা ভূমিকম্প, বন্যা কিংবা মঙ্গা, সব জায়গাতেই লড়ছে যে জন , রাখতে মোদের চাঙ্গা । সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
গুলির আওয়াজে ধরণীর মাঝে, ছুটছে জনতা দিক বেদিক। বন্ধু বেশে দৌড়ে এসে দাড়ায়, যেজন তোমার পাশে। জানিয়ে দিতে বিশ্ব বাসীকে, এটা কি তাদের পথ সঠিক ? সে জন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
সত্য কথা বলতে গিয়ে, পথ হারাকে ধরতে গিয়ে। অপরাধী আর পাপাচারীদের, মুখের মুখোশ খুলতে গিয়ে। জীবন বাজি রাখছে যারা, সংবাদেরই পাগল তারা। সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
মাথায় রেখে শ্রদ্ধা ভক্তি, সাংবাদিকদের হাজার যুক্তি । লক্ষ প্রশ্ন করে বসবে, হওনা তুমি এমপি,মন্ত্রী। মৃত্যুর সংবাদ আনতে গিয়ে, অপমৃত্যু কে রুখতে গিয়ে, মৃত্যুর ফাঁদে পড়ছে যেজন । সেজন আর কেহ নয়। সাংবাদিক! 
স্রষ্টার ভয়ে চলে যারা, সত্য কথা লিখে তারা, দালালরূপী পশু যারা,শাক দিয়ে মাছ ঢাকে তারা।

No comments: