নমামি বরাক উৎসব বরাকের উন্নয়নের জন্যে শুভ সূচনা---মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল

সাইফুল ইসলাম সুমন, ভারতের আসাম থেকে: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্বপ্নের নতুন ভারত গড়তে উত্তর-পূর্বাঞ্চল চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করবে। শিলচর নমামী বরাক উৎসবের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল এভাবে বলেন । মুখ্যমন্ত্রী এ ও বলেন যে নমামি বরাক একটি উৎসব নয়, বরাকের উন্নয়নের জন্যে শুভ সূচনা। 

মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল নমামি বরাকের মঞ্চ থেকে বরাক উপত্যকার তিন জেলা কাছাড়, করিমগঞ্জ ও হাইলাকান্দিতে তিনটি নতুন সেতু নির্মানের কথা ঘোষণা করেন। খুব শীঘ্রই বরাকে মিনি সচিবালয় নির্মানের কাজ শুরু হবে । এছাড়াও শিলচরে স্বামী বিবেকানন্দ আর্ন্তজাতিক গবেষণা কেন্দ্র, একটি উন্নতমানের আধুনিক গ্রন্হাগার, তিন জেলায় তিনটি দক্ষতা বিকাশ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। সভায় মুখ্যমন্ত্রী রেল প্রতিমন্ত্রী রাজেন গোঁহাইর কাছে অবিলম্বে শিলচর-সৌরাষ্ট্র এবং শিলচর-ডিব্রুগড়ের মধ্যে রেল পরিষেবা শুরু করতে অনুরোধ করেন যাতে বরাকের যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও উন্নত হয় । 

এদিকে বরাক নদীর জল ধারন ক্ষমতা আরো বৃদ্ধি করতে এবং জল পথে বাণিজ্য উদ্দেশ্যে আজ থেকে নদী খননের কাজ শুরু হয়েছে। আজ থেকে রাণীঘাটে বরাক নদীর খনন কার্য্যশুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে আগে দুটি পর্য্যায়ে বরাক নদী খননের কথা ছিল কিন্ত্তু এখন সরকার পাঁচটি পর্য্যায়ে নদী খননের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী সফলতার কোন সহজ পথ নেই তাই রাজ্যের উন্নতির জন্য সবাইকে এক সঙ্গে কঠোর পরিশ্রম করতে সবার প্রতি আহ্বান জানান। শিলচর পুলিশ প্যারেড গ্রাউন্ডছ আয়োজিত তিন দিনের নমামি বরাক উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন ত্রিপূ্রার রাজ্যপাল তথাগত রায়, নাগাল্যান্ডের রাজ্যপাল পি বি আচার্য্য, মেঘালয়ের রাজ্যপাল গঙ্গা প্রসাদ, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু, রেল প্রতিমন্ত্রী রাজেন গোঁহাই, বিধান সভার প্রাক্তন অধ্যক্ষ রঞ্জিত কুমার দাস, দিলীপ কুমার পাল, সাংসদ বিজয় চক্রবর্তী, বড়োল্যান্ড স্বশাসিত পরিষদের মুখ্য কার্য্যবাহী সদস্য হাগ্রামা মহিলারী, বিদ্যুৎ প্রতি মন্ত্রী পল্লব লোচন দাস, পূর্ত মন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্য, মন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোয়ারী, কবীন্দ্র পুরকায়স্হ। রাজ্যের মুখ্য সচিব ভি কে পিপার সেনিয়া ও পুলিশ সঞ্চালক প্রধান মুকেশ সহায় ।

নমামি বরাক উৎসব উপলক্ষে তিনদিনই স্থানীয় শিল্পীদের পাশাপাশি ভারতকণ্ঠ দেবজিৎ সাহা, বলিউডের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী শান ও জুবিন গার্গ সংগীত পরিবেশন করবেন। নমামি বরাক উৎসবকে ঘিরে বরাকের তিন জেলাই এখন উৎসবের মেজাজে। তবে শনিবার বিকেলে কুশিয়ারাঘাটে আয়োজন করা হয় নৌকা দৌড়ের। আর তা দেখতে কুশিয়ারার উভয় পারে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হন। এদিকে, সন্ধ্যায় সবার নজর কাড়ল ওপারে বাংলাদেশি মানুষের সমাগম। সন্ধ্যা আরতির সময় ওপারে জকিগঞ্জঘাটে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হন। বাংলাদেশের হিন্দু লোকেরাও একই সময়ে নদী বন্দনায় মেতে ওঠেন। এত লোকের সমাগম হয়েছিল যে ওপারে বাংলাদেশ পুলিশকে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করতে হয়েছে। একই ভাষা, সংস্কৃতি এপার ও ওপারে। কিন্তু আন্তর্জাতিক সীমান্ত বিভক্ত করে রেখেছে সাধারণ মানুষকে। তাই এদিন সন্ধ্যায় এক আবেগিক মুহূর্তের সবাক্ষী হয় এপার-ওপার।

No comments: