রোহিঙ্গা ফেরতে মিয়ানমারের আশ্বাস : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জুড়ী টাইমস সংবাদ: নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে মিয়ানমার সরকার। সোমবার দুপুরে ঢাকার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকে এ প্রস্তাব দিয়েছেন সফররত মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির দপ্তরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়ে।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য দিয়ে আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে মিয়ানমার সরকার। তাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া তত্ত্বাবধানের জন্য দু’দেশ একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

এই বৈঠকে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট সচিব শহীদুল হক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন ও মিয়ানমারের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ছাড়াও দেশটির উচ্চ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তা উপস্থিতি ছিলেন।

বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। আর মিয়ানমারের পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির দপ্তরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়ে।

পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মিয়ানমারের মন্ত্রীর সঙ্গে তাদের অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ আলোচনা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘খুব শিগগিরই দু’দেশ মিলে ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হবে। এরপর যত দ্রুত সম্ভব তারা কাজ শুরু করবে।’
হাসান মাহমুদ আলী জানান, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বাস্তবায়নে সহায়তা করার জন্য বাংলাদেশ মিয়ানমারের কাছে একটি দ্বি-পাক্ষিক চুক্তির প্রস্তাব করেছে। এই চুক্তির একটি খসড়াও তাদের কাছে হস্থান্তর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমারের সঙ্গে সীমান্ত ও নিরাপত্তা সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এসব আলোচনা অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়েছে।’

তিনি জানান, বৈঠকে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের জিরো ট্রলারেন্স নীতির কথা পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, খুব শিগগিরই মিয়ানমার সফর করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।
তিনি বলেন, ‘আমরা রোহিঙ্গাদের সবাইকে শান্তিপূর্ণভাবে তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে পারব বলে আশাবাদী।’
এর আগে রোববার রাতে এক সংক্ষিপ্ত সফরে ঢাকায় আসেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির দপ্তরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়ে।

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৫ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলিম পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

সহিংসতা শুরুর পর এটিই মিয়ানমারের কোনো মন্ত্রীর বাংলাদেশে প্রথম সফর। তবে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনের কোনো কর্মসূচি টিন্ট সোয়ের নেই। এই বৈঠক শেষেই তিনি দেশে ফিরে যাবেন।

No comments: