জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ বিলুপ্তির দুই বছর পর আহবায়ক কমিটি

বিশেষ প্রতিনিধি: জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি গঠিত হয়েছে। গত সোমবার রাতে এ কমিটি ঘোষণা করে। দলীয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবর জেলা ছাত্রলীগের মাধ্যমে জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও এর অন্তর্ভুক্ত সব ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। এরপর এই দুই বছর ধরে জুড়ী উপজেলায় ছাত্রলীগের কোনো কমিটি ছিল না। এতে দলীয় কার্যক্রমে স্থবিরতা দেখা দেয়। এমন পরিপ্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ  আসাদুজ্জামান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রনি জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি দেওয়ার সিন্ধান্ত নেন। তাঁরা সোমবার রাতে জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও উপজেলা সদরে অবস্থিত তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেন। এ দুটি কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান রনি। জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি করা হয়েছে ১৫ সদস্যের কমিটিতে হুমায়ুন রশীদ রাজিকে আহবায়ক  এবং আব্দুল হান্নান, সাহাব উদ্দিন সামসু, বাবেল আহমদ, ফয়সল আহমদ, মোঃ বেলাল হোসাইন, রাজীব বৈদ্য, রাজিবুর রহমান, সাইদুর রহমান, দেবাশীষ দাশ যুগ্ম আহবায়ক ও আশরাফুল, খায়রুল ইসলাম, রাজু দাস, নাজমুল ইসলাম তুহিন, গোলাম কিবরিয়া পিয়ালকে সদস্য করা হয়েছে। অন্যদিকে মোঃ শাহাব উদ্দিন সাবেলকে আহবায়ক এবং মিজানুর রহমান মিজান, ইকবাল ভূঁইয়া, রিয়াজ উদ্দিন, শাকির চৌধুরী ও তাপস দাস যুগ্ম আহবায়ক করে তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজ কমিটি অনুমোদন করেছে জেলা ছাত্রলীগ। দলীয় সূত্রে জানা যায়, শেখরুল ইসলাম ও জুয়েল রানার  নেতৃত্বে ছাত্রলীগের দুটি উপজেলা কমিটি দীর্ঘদিন ধরে পৃথকভাবে দলীয় কার্যক্রম চালাচ্ছিল। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও পৃথক কমিটি ছিল। এর ফলে জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রমে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। এ অবস্থায় সংগঠনের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে জেলা ছাত্রলীগ সংগঠনের উপজেলা কমিটি ও এর আন্তর্ভুক্ত সব ইউনিট ২০১৫ সালে বিলুপ্ত ঘোষণা করে। এরপর থেকে জুড়ী উপজেলায় বিক্ষিপ্তভাবে দলীয় কর্মকাগু পরিচালিত হয়ে আসছিল।

No comments: