ভুমি জটিলতায় বিলম্বিত হচ্ছে জুড়ী উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লক্সের উদ্বোধন



মাহবুব অালম জলিল: জুড়ী উপজেলার বাছির পুরে নব নির্মিত উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লক্সের কাজ শুরু হয় ২০১৪ সালে, ঠিকাদারি প্রতিষ্টান অালী এন্ড সন্সের তত্বাবধানে প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যায়ে ৫ একর জমির উপর এই স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সটি নির্মান কাজ সম্পন্ন হয় ২০১৬ সালের মাঝামাঝি সময়। কাজের শুরুতে কোন সমস্যা না হলে ও নির্মান কাজ শেষে শুরু হয় ভুমি নিয়ে জটিলতা।


জানা গেছে, স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের জন্য ভুমি অধিগ্রহনের সময় বাছির পুর গ্রামের মরহুম অাব্দুল মন্নানের ছেলে শওকত অালীর (ধলা) ১৩ শতক জায়গা অধিগ্রহনকৃত ভুমির মধ্যে বেশী রয়ে যায় এই দাবী করে শওকত অালী (ধলা) কমপ্লেক্সের দেয়ালের ভেতরে অাগে থেকে নির্মিত তার বাড়ীতে স্ব পরিবারে বসবাস করে অাসছে।

প্রশাসন থেকে বেশ কয়েকবার নোটিশ দেওয়ার পর ও সে তার জায়গার দখল ছাড়ছেনা। শেষ পর্যন্ত স্হানীয় প্রশাসন শওকত অালী ( ধলা) কে অন্যত্র বাড়ী নির্মান করার জন্য ২০ শতক জায়গা দেয়ার প্রস্তাব করলে সে জায়গার দখল ছাড়তে সম্মত হয়।

এখনো পর্যন্ত সেই ২০ শতক জায়গার দলিল তাহাকে দেয়া হয়নি বিধায় শওকত অালী (ধলা) কে স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের দেয়ালের ভেতর থেকে সরানো সম্ভব হচ্ছেনা। অার এই কারনে বিলম্বিত হচ্ছে,জুড়ী উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের উদ্বোধন।
ঠিকাদারি প্রতিষ্টান সুত্রে জানা গেছে, মাননীয় হুইপ মহোদয় অতি দ্রুত বিষয়টি সমাধানের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

স্হানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যন শ্রীকান্ত দাশের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ভুমি দাবিদার শওকত অালী (ধলা) কে ইতিমধ্যে কয়েক বান টিন দেওয়া হয়েছে, এবং খুব শীঘ্রই তাহার সাথে ভুমি জটিলতা দুর হয়ে যাবে এবং অতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সটি উদ্বোধন করা হবে বলে অাশা করছেন।

No comments: