জুড়ীবাসীর গর্ব টেমস তীরে সেলিম আলতাফ লিটন

মিফতাহ আহমেদ লিটন: মানুষ চাইলে কিনা হয়, সাফল্য কি দুরে রয়। এমনই এক সাফল্যের জলন্ত স্তম্ব হয়ে দাড়িয়ে আছেন  সাগরনালের এক তরুন যুবক যিনি শৈশবে পাড়ি জমিয়ে ছিলেন জীবিকা জন্য স্বপ্নের শহর লন্ডনে। সেখানে গিয়ে তিনি থেমে থাকেননি হেটেছেন এখনও তিনি হাটছেন, প্রত্যাশা বহুদুর হাটবেন। কারন প্রত্যয়ী একজন সংগঠক তিনি। 

লন্ডনের মত শহরে তিনি গড়ে তুলেন সাসকো ফুড নামে একটি বিজনেস প্রতিষ্ঠান, সেই সময় থেকে তার অক্লান্ত পরিশ্রমে বৃহৎ প্রতিষ্ঠানে রুপ নেয় আজকের সাসকো। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে সাবলীলভাবে অংশগ্রহন করছেন। এই স্থানে তিনি বেশ সফল। লন্ডনে বেশ কয়েকটি সংগঠনকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছেন। তিনি সব সময় বিশ্বাস করেন নেতা না হয়েও নিজের একান্ত প্রচেষ্টায় যে কোন স্থান থেকে এগিয়ে আসলে সমাজের কল্যানকর কাজ সম্ভব। 

আজ তিনি হাজির হলেন তারই প্রিয় বিদ্যাপীঠ কালের সাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে থাকা অসংখ্য শিক্ষার্থীর প্রানের স্পন্দন সাগরনাল উচ্চ বিদ্যালয়ে, স্মৃতিচারন করলেন অতীতের সবটুকু অনুভুতির। যা এক কথা অসাধারন। বিশেষ করে সাবেক প্রধান শিক্ষক আবুল ইসলাম, দুর্গাশঙ্কর ভট্টাচার্য(বিকম), প্রয়াত শিক্ষক নরেন্দ্র কুমার সিংহ, মরহুম মাওলানা সামস্ উদ্দিনসহ সবার কথা। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন দিক তার নিকট তুলে ধরলেন প্রধান শিক্ষিকা রাশেদা আক্তার তখন সেলিম আলতাফ লিটন সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। তাৎক্ষিনক শ্রেণী কক্ষে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার সুবিধার্থে স্পিকার, এ্যাম্বলীর জন্য মাইক্রোফোন, কম্পিউটার লাভের জন্য অার্থিক সহায়তা দ্রুত প্রদানের আশ্বাস দেন। তিনি প্রধান শিক্ষিকাকে আশ্বাস্থ করেন পর্যায়ক্রমে তিনি সাগরনাল উচ্চ বিদ্যালয়কে সার্বিক সহযোগিতা করে যাবেন। সাথে যোগদেন স্পেন প্রবাসি শফিকুর রহমান তিনিও বিদ্যালয়ের জন্য  সহযোগিতার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন। এ সময় বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক জগদীশ চন্দ্র শর্মা এবং বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সিরাজ উদ্দিন, জবা রানী চাষা, লায়লী বেগম, হারুনুর রশীদ, নিত্যানন্দ বর, মিফতাহ আহমেদ লিটন, আশরাফ আহমদ, জয়নাল আবেদিন, সাইফুল ইসলাম, জায়দা বেগম, নয়ন মনি, কামাল উদ্দিন, আব্দুস সহিদ। 

পরে তিনি ফেসবুক লাইভে নিজের অনুভুতি ব্যক্ত করেন। বিকালে তিনি মানবসেবা মূলক সংগঠন প্রত্যয়ের সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করেন এবং সাগরনালবাসী তথা জুড়ীবাসীকে আগাম ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। স্বল্প সময়ের ভ্রমনকালে অনেকের সাথে দেখা করতে না পারায় তিনি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেন। আগামী মাসে সংক্ষিপ্ত ভ্রমন শেষে সেলিম আলতাফ লিটন লন্ডনে ফিরে যাবেন।

No comments: