ছাগল নিয়ে তোলপাড় ; খুলনার সাংবাদিক লতিফের জামিন

বাবুল আকতার, খুলনা থেকে : বিতরণকৃত ছাগলের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দের ছবি দিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার মামলায় গ্রেপ্তারকৃত সাংবাদিক লতিফকে জামিন দিয়েছে আদালত। গতকাল বুধবার দুপুরে খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ‘খ’ অঞ্চলের বিচারক নুসরাত তাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

সাংবাদিক আবদুল লতিফ মোড়লকে গত মঙ্গলবার দুপুরে খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ‘খ’ অঞ্চলে হাজির করা হয়। এ সময় আসামির আইনজীবীরা জামিন চাইলে বিচারক নুসরাত শুনানি শেষে গতকাল বুধবার আবারো মামলার শুনানির দিন ধার্য করে লতিফকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আসামির অনুপস্থিতিতে গতকাল বুধবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে আদালতে জামিনের শুনানি শুরু হয়। পরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ‘খ’ অঞ্চলের বিচারক নুসরাত ১০ হাজার টাকার মুচলেকায় লতিফকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

উল্লেখ্য, গত ২৯ জুলাই মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ তার নিজ এলাকা ডুমুরিয়া উপজেলায় ২৪টি পরিবারের মধ্যে একটি করে ছাগল, ১৮টি পরিবারের মধ্যে ৭টি করে মুরগি ও ১৫টি পরিবারের মধ্যে ৭টি করে হাঁস বিতরণ করেন। জুলফিকার আলী নামে এক ব্যক্তির পাওয়া ছাগলটি ওই দিন রাতে মারা যায় বলে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। স্থানীয় সাংবাদিক আবদুল লতিফ ছাগল মরার খবরটির সঙ্গে ছাগল বিতরণ বা মৃত ছাগলের কোনো ছবি না দিয়ে সেখানে প্রতিমন্ত্রীর একটি পাসপোর্ট আকারের ছবি যুক্ত করে ফেসবুকে শেয়ার দেন। এ ছবি দেখে যশোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক স্পন্দন পত্রিকার ডুমুরিয়া প্রতিনিধি সুব্রত বাদী হয়ে লতিফের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় থানায় মামলা করেন।

No comments: