জুড়ীতে এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, গ্রেপ্তার ১

জুড়ী টাইমস সংবাদ: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় নয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গতকাল শনিবার রাত ১২টার পরে জুড়ী থানায় মামলা হয়। রাতেই অভিযান চালিয়ে হারুন মিয়া (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

হারুন মিয়া পানের দোকানের ব্যবসা করেন। উপজেলা সদরের ডাকঘর সড়ক এলাকায় তাঁর একটি দোকান রয়েছে। হারুন মিয়ার দাবি, তাঁকে পরিকল্পিতভাবে ফাঁসানো হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেল চারটার দিকে শিশুটির মা তাকে হারুনের বাড়ির পেছনে চরানো ছাগল আনতে পাঠান। ছাগল নিয়ে ফেরার পথে হারুন শিশুটির মুখ চেপে ধরে ঘরে নিয়ে যান। ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ সময় হারুনের স্ত্রীসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা বাড়িতে ছিলেন না। এদিকে বাড়ি না ফেরায় শিশুটির মা তার খোঁজে বের হন। হারুনের ঘরের কাছে পৌঁছালে ভেতর থেকে চিৎকার শুনে তাঁর সন্দেহ হয়। পরে তিনি হারুনকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন।
বিকেলে শিশুটির বাবা ঘটনাটি শুনে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানান। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি আপসে নিষ্পত্তির চেষ্টা চলে। তবে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান বিষয়টি জেনে রাতেই শিশুর স্বজনদের থানায় পাঠান। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে শিশুর মা (৩৫) বাদী হয়ে হারুনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। রাতেই হারুনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন রোববার সকালে বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। হারুনের স্বভাবচরিত্র ভালো নয় বলেও জানিয়েছে এলাকাবাসী। সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হারুনকে মৌলভীবাজার আদালতে পাঠানো হবে। এ ছাড়া জবানবন্দি গ্রহণের জন্য শিশুটিকেও আদালতে পাঠানো হবে।

থানাহাজতে থাকা হারুন মিয়া তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি দাবি করেন, শিশুটির পরিবারের সঙ্গে তাঁর জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এর জের ধরে তাঁকে মামলা দিয়ে ফাঁসানো হয়েছে।

No comments: