তারিখ দিয়ে সম্মেলন স্থগিত, হতাশায় নেতা–কর্মীরা

বিশেষ প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ও জুড়ী উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করে আবার তা স্থগিত করা হয়েছে। কেন্দ্রের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে সম্মেলন করতে না পারায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটি। এতে দুটি উপজেলায় নেতা-কর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে সম্মেলনের মাধ্যমে বদরুল ইসলামকে সভাপতি ও আবদুস শহীদকে সাধারণ সম্পাদক করে যুবলীগের কুলাউড়া উপজেলা এবং আবদুল খালিককে সভাপতি ও রিংকু রঞ্জনকে সাধারণ সম্পাদক করে জুড়ী উপজেলা কমিটি গঠিত হয়। ৩০ মার্চের মধ্যে যুবলীগের সব উপজেলা কমিটির সম্মেলন করতে জেলা কমিটিকে কেন্দ্র থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু জেলা কমিটি তা করতে পারেনি।

গত ২২ মার্চ জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হকের উপস্থিতিতে কুলাউড়ায় ৫ এপ্রিল ও জুড়ীতে ৭ এপ্রিল সম্মেলন করার ঘোষণা দেওয়া হয়। সম্মেলনকে সামনে রেখে নেতা-কর্মীরা সরব হয়ে ওঠেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কুলাউড়া যুবলীগের ছয়জন ও জুড়ী উপজেলা যুবলীগের সাতজন নেতা-কর্মী বলেন, এমনিতেই ২০০৯ সালের পর উপজেলা কমিটির সম্মেলন না হওয়ায় তৃণমূল পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা ঝিমিয়ে পড়েছিলেন। এবার কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণায় সবাই চাঙা হয়ে ওঠেন। কিন্তু হঠাৎ কাউন্সিল স্থগিত হওয়ায় সবাই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন।

জুড়ী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল খালিক বলেন, ‘আমাদের সব প্রস্তুতি ছিল। জেলা যুবলীগ কাউন্সিল স্থগিতের কথা জানিয়েছে।’

কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুস শহীদ বলেন, ‘আমরা ৫ এপ্রিলের আগেই উপজেলার সব ইউনিয়ন ও পৌরসভা কমিটির কাউন্সিল সম্পন্ন করি।’

এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগের সভাপতি মেয়র ফজলুর রহমান বলেন, ‘সাংগঠনিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে ৩০ মার্চের মধ্যে সব উপজেলায় কাউন্সিল সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি। কেন্দ্রের নির্দেশে কুলাউড়া ও জুড়ীতে কাউন্সিল স্থগিত করা হয়েছে। এখন কেন্দ্র থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার এমপির সঙ্গে পরামর্শ করে সেখানে কমিটি গঠন করে দেওয়া হবে।’

No comments: