কালনী ট্রেনে ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি: সিলেটগামী আন্ত:নগর কালনী ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত প্রদীপ দাশ নামের এক ডাকাত ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত ছিলো বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। ওই ডাকাতের কাছ থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি ছোরা ও লুণ্ঠিত দু’টি মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করা হয়েছে। শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, প্রদীপ দাশ আন্ত:জেলা ডাকাতদলের সক্রিয় সদস্য। সে লাকসাম রেলওয়ে থানায় রজু হওয়া এক সেনা সদস্য হত্যা মামলারও আসামী। ওই হত্যা মামলায় সিরাজুল ইসলাম বাবুল নামের অপর এক ডাকাতকে লাকসাম রেলওয়ে থানা পুলিশ গ্রেফতার করে সম্প্রতি। সে পরবর্তীতে কুমিল্লার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি আইনের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। ওই মামলায় প্রদীপ জড়িত বলে স্বীকার করে। এদিকে সিলেট-আখাউড়া রেলপথে আন্ত:নগর কালনী ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় আন্ত:জেলা ডাকাতদলের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করে শ্রীমঙ্গল জিআরপি পুলিশ।

গত ২৪ অক্টোবর রাতে কালনী ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় ডাকাত প্রদীপ দাশকে গ্রেফতার করে রেলওয়ে পুলিশ। একইসঙ্গে তার কাছ থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি ছোরা ও লুণ্ঠিত দু’টি মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করা হয়। গত ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় মৌলভীবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব দেব’র আদালতে ট্রেনে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় প্রদীপ। সে হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার মশাখালি গ্রামের কালি দাশের ছেলে।

No comments: