এক যুগ পর বড়লেখায় যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন আজ

বিশেষ প্রতিনিধি : দীর্ঘ প্রায় একযুগ পর আজ মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। সম্মেলন ও কাউন্সিল ঘিরে গত দুইমাস ধরে দলীয় নেতাকর্মীর মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য বিরাজ করছে। ইতিমধ্যেই নেতাকর্মীদের মাঝে সাজ সাজ রব পড়েছে। সম্মেলন সফল করতে পোস্টার, ডিজিটাল ব্যানার টানানো হয়েছে শহরের প্রাণকেন্দ্রসহ বিভিন্ন স্থানে।

সভাপতি ও সম্পাদক পদে পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৭ নেতা নির্ঘুম প্রচারণা চালাচ্ছেন। উপজেলার ১০ ইউনিয়ন ও পৌর কমিটির নেতৃবৃন্দের (ভোটার) সমর্থন আদায়ে প্রার্থীরা রয়েছেন মহাব্যস্ত। আগামী তিন বছরের জন্য কারা হচ্ছেন উপজেলা যুবলীগের কর্ণধার- এ নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা, নানা হিসাব-নিকাশ।
পৌর শহরের আহমদ ম্যানশনের সম্মুখে অনুষ্ঠিত সম্বেলনের মঞ্চ নির্মাণসহ সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন জেলা যুবলীগের সভাপতি ফজলুর রহমান। সম্মেলনী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এমপি। আর বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন জাতীয় সংসদের হুইপ মো. শাহাব উদ্দিন এমপি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য অধ্যাপক রফিকুর রহমান প্রমুখ। এছাড়াও আওয়ামী লীগ, যুবলীগের কেন্দ্রীয় এবং জেলা-উপজেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ ২০০৩ সালের ২৬ জুলাই বড়লেখা উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিলে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর সভাপতি ও মাহবুবুল আম্বিয়া চৌধুরী রুহুল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আম্বিয়া চৌধুরী রুহুল প্রবাসে চলে যাওয়ায় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদিরকে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নিযুক্ত করা হয়। অদ্যাবধি তারা দায়িত্বে আছেন।

২০১৪ সালে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সুন্দর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও পরবর্তীতে উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় যুবলীগের দলীয় কর্মকান্ডে স্থবিরতা দেখা দেয়। এর মধ্যে উপজেলার যুবলীগের কাউন্সিলকে ঘিরে গত দু’মাস ধরে নেতাকর্মীর মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।

সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত চষে বেড়াচ্ছেন উপজেলা যুবলীগের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুল কাদির, বড়লেখা পৌরসভার প্যানেল মেয়র তাজ উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি আব্দুল মুমিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু আহমদ হামিদুর রহমান শিপলু, দক্ষিণভাগ (উত্তর) ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক এনাম উদ্দিন।

আর সাধারণ সম্পাদক পদে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সালেহ আহমদ জুয়েল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন ও উপজেলা যুবলীগ নেতা আব্দুস সালাম।

No comments: