সৌদি আরব পাঠানোর লোভ দেখিয়ে বড়লেখায় তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১

বিশেষ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের বড়লেখা থেকে বিদেশ পাঠানোর লোভ দেখিয়ে এক তরুণীকে (১৯) ধর্ষণ করেছে দুই দালাল। বুধবার (২৬ অক্টোবর) রাতে উপজেলার কেছরীগুলস্থ দোকানটিলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা দায়ের করলে বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) বিকেলে ধর্ষক জামাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

সূত্র জানায়, উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নের বড়ময়দান গ্রামের জনৈক তরুণীকে মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে চাকরি দেওয়ার প্রস্তাব দেয় পৌর শহরের সোনাপুর গ্রামের ইলিয়াছ আলীর ছেলে আব্দুর রহমান। বুধবার সন্ধ্যার পর আব্দুর রহমান বিদেশ পাঠানোর নামে ওই তরুণীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আসে। বুধবার রাত ৮টায় কেছরীগুল এলাকার দোকানটিলা নামক নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে সহযোগি জামাল উদ্দিনসহ জোরপূর্বক ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। এরপর গভীর রাতে দুই ধর্ষক তরুণীকে একটি রিকশায় তোলে দিয়ে তারা চলে যায়।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে ধর্ষিতা বাদী হয়ে লম্পট আব্দুর রহমান ও জামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা (নং-২২) করে। মামলার প্রেক্ষিতে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই জাহাঙ্গীর আলম অভিযান চালিয়ে নিজবাড়ি থেকে মামলার ২নং আসামী জামাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করেন। সে পৌরসভার সোনাপুর গ্রামের হারুন আলীর ছেলে। 
বড়লেখা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সহিদুর রহমান আসামী গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

No comments: