সাইফুল ইসলাম সুমনঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে উপমহাদেশের বৃহৎ ও প্রাচীন ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান আজ শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে। বাঙালির স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশনায় ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি এ সংগঠনটির জন্ম হয়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও কলেজ ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে জুড়ী শিশু পার্ক মাঠে আজ দিনব্যাপী নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন কর্মসূচি।
জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের পাশাপাশি দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, বেলা ৩টায় জুড়ী শিশু পার্ক মাঠে অনুষ্ঠিত হবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা ও আলোচনা সভা এবং সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উক্ত অনুষ্ঠানমালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আলহাজ্ব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বদরুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ও ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমিরুল হোসেন চৌধুরী আমিন। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম। সভাপতিত্ব করবেন জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন সাবেল। সঞ্চালনায় থাকবেন জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল ভূইয়া উজ্জ্বল। এ আয়োজনে জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত থাকবেন। উক্ত অনুষ্ঠানে সকলের উপস্থিতি কামনা করেছেন তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশফাক আহমেদ আদনান ও সাধারণ সম্পাদক গৌতম দাশ।

সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করবেন- বাংলাদেশী আইডলের রানার আপ ও ভারতের জি-বাংলার কন্ঠ শিল্পী মন্টি সিনহা সহ কন্ঠ শিল্পী সুপ্রিয়া, রাজা, আরোহী, পুষ্পা, ঝুমা। নৃত্য পরিবেশন করবেন নদী, জাদু পরিবেশন করবেন বাংলাদেশ ও মালেশিয়ার জনপ্রিয় জাদু শিল্পী মামুন মাহিন, কৌতুক উপস্থাপন করবেন বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সুলতান সুমন।


জুড়ী টাইমস সংবাদঃ কাতারস্থ জুড়ী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সদ্য সাবেক সফল সাধারণ সম্পাদক, কাতারস্থ সিলেট বিভাগ সমাজকল্যাণ পরিষদের সহসভাপতি ও কাতারস্থ জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক, বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা ও সমাজসেবক আবুল হাসানের দেশে আগমনে এক মোটরসাইকেল শোভা যাত্রাসহ ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) কমিউনিটি নেতা আবুল হাসান কাতার থেকে দেশে আসলে তার নিজ উপজেলা জুড়ীর বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা তাকে মানিকসিংহ এলাকা থেকে রিসিপ করে এক মোটরসাইকেল শোভাসহ জুড়ী শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে জুড়ী নাইট চৌমুহনীতে আগত বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। এসময় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে আবুল হাসানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

উল্লেখ্য, আবুল হাসান এক সংক্ষিপ্ত সফরে দেশে আসেন। দেশে অবস্থানকালে তিনি তাঁর বড় ভাই ডাঃ মোহাম্মদ হোসেনের বড় ছেলে ইতালী প্রবাসী কামরুল হাসান রাজিবের বিয়েতে অংশগ্রহণসহ বেশ কয়েকটি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দানকারী দেশের সবচেয়ে প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিলো ৪ জানুয়ারি শনিবার। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ১৭ জানুয়ারি শুক্রবার মৌলভীবাজারের জুড়ীতে অনুষ্ঠিত হবে ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও কলেজ ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে ওইদিন দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, বেলা ৩টায় জুড়ী শিশু পার্ক মাঠে অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা এবং সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি। উক্ত অনুষ্ঠানে সকলের উপস্থিতি কামনা করেছেন আয়োজকবৃন্দ।

বাংলা বাঙালির স্বাধীনতা স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যেই মূল দল আওয়ামী লীগের জন্মের এক বছর আগেই প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল গৌরব ঐতিহ্যের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। 
১৯৪৮ সালের জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। তার নেতৃত্বেই ওই দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলে আনুষ্ঠানিকভাবে এর যাত্রা শুরু হয়। তৎকালীন তরুণ নেতা শেখ মুজিবের প্রেরণা পৃষ্ঠপোষকতায় এক ঝাঁক মেধাবী তরুণের উদ্যোগে সেদিন যাত্রা শুরু করে ছাত্রলীগ। ৭২ বছরে ছাত্রলীগের ইতিহাস হচ্ছে জাতির ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা, মুক্তির স্বপ্ন বাস্তবায়ন, স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে আনা, গণতন্ত্র প্রগতির সংগ্রামকে বাস্তবে রূপদানের ইতিহাস। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিটি গণতান্ত্রিক প্রগতিশীল সংগ্রামে ছাত্রলীগ নেতৃত্ব দিয়েছে এবং চরম আত্মত্যাগের মাধ্যমে বিজয় ছিনিয়ে এনেছে।
 
১৯৪৯ সালে তৎকালীন পাকিস্তানের প্রথম বিরোধী দল হিসাবেআওয়ামী মুসলিম লীগে আত্মপ্রকাশ ঘটে, যা পরে আওয়ামী লীগ নাম ধারণ করে দেশের স্বাধিকার স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতৃত্ব দেয়। প্রেক্ষাপটে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বাঙালি জাতির ইতিহাসে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। বাহান্নর ভাষা আন্দোলনে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বুকের তাজা রক্তের বিনিময়ে বাঙালির ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা, ৫৪ সাধারণ নির্বাচনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ পরিশ্রমে যুক্তফ্রন্টের বিজয় নিশ্চিত, ৫৮ আইয়ুববিরোধী আন্দোলন, ৬২ শিক্ষা আন্দোলনে ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা, ৬৬ দফা নিয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়া, দফাকে বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ হিসাবে প্রতিষ্ঠা করা, ৬৯ গণঅভ্যুত্থানে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে পাক শাসকের পদত্যাগে বাধ্য করা এবং বন্দীদশা থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুক্ত করা, ৭০ নির্বাচনে ছাত্রলীগের অভূতপূর্ব ভূমিকা পালন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে ছাত্রলীগের অংশগ্রহণ, স্বাধীনতাপরবর্তী সামরিক শাসনের অবসান ঘটিয়ে গণতন্ত্রে উত্তরণসহ প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে ছাত্রলীগের অসামান্য অবদান দেশের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

ইতিহাসের বাঁকে বাঁকে বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্ব দেয়া সংগঠনের নেতাকমীরা পরে জাতীয় রাজনীতিতেও নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং এখনও দিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমান জাতীয় রাজনীতির অনেক শীর্ষনেতার রাজনীতিতে হাতেখড়িও হয়েছে ছাত্রলীগ থেকে। উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ প্রাচীন ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম সাফল্যের ৭২তম প্রতিষ্ঠবার্ষিকী উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়েছেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
 
গৌরব, ঐতিহ্য সংগ্রামের ৭২ বছরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও কলেজ ছাত্রলীগ কর্তৃক আগামী ১৭ জানুয়ারি শুক্রবার আয়োজিত প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সকল অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করে অনুষ্ঠানকে সফল করতে সবার প্রতি আহবান জানিয়েছেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাব উদ্দিন সাবেল, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল ভূইয়া উজ্জ্বল, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি আশফাক আহমেদ আদনান, সাধারণ সম্পাদক গৌতম দাস।


জুড়ী টাইমস সংবাদঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে সাবেক এমপি ও ঠিকানা গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এম শাহীনকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। ১২ জানুয়ারি রবিবার সন্ধ্যায় বেলাগাঁও কন্টিনালা যুব ও সমাজকল্যাণ পরিষদের আয়োজনে ক্লাব মিলনায়তনে এই সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। 

ওইদিন সাবেক এমপি ও ঠিকানা গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এম শাহীন ব্যক্তিগত এক সফরে এশিয়ার বৃহত্তম হাকালুকি হাওর ভ্রমণে আসেন। তখন হাকালুকি হাওর পাড়ের মানুষেরা তাদের প্রিয় এই নেতাকে কাছে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। হাকালুকি হাওর থেকে ফেরার পথে সন্ধ্যায় এম এম শাহীনকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পরিষদের সভাপতি মানিক মিয়ার সভাপতিত্বে এবং জুড়ী সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সুমনের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি ও ঠিকানা গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এম শাহীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জুড়ী সাংবাদিক সমিতির সহসভাপতি হারিস মোহাম্মদ, কুলাউড়া সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম, কুলাউড়া ব্যবসায়ী সমিতির প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান খালিক, বেলাগাঁও গ্রামের বিশিষ্ট সমাজসেবক আব্দুল গনি সরদার, আব্দুল বারেক সরকার, অহিদ খাঁ, দুলাল মিয়া, আব্দুল হাসিম, এম এম শাহীনের ছোট মেয়ে মুশরাত শাহীন অনুভা, একমাত্র ছেলে রাফিদ শাহীন, জামাতা রুহিন হোসাইন, নূর রাকিব আহসান, হিদিতা তাসনিম, রাকিব আহমদ, হুমায়ুন রাজন, আবরার ফাইয়াজ তাহা, আকিব ইবনে মিজান, তালুকদার শাহী, নাহিদ রহমান প্রমূখ। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এম এম শাহীন বলেন, আমি যখন এমপি ছিলাম আমার আমলে জুড়ীতে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। জুড়ী উপজেলা স্থাপন, অসংখ্য স্কুল-মাদরাসা নির্মাণ, রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ, গ্যাসসহ কৃষকদের উন্নয়নে রাবার ড্রাম নির্মাণ করেছি। আসন বিন্যাসের কারনে কুলাউড়া থেকে জুড়ী আলাদা হলেও জুড়ীর মানুষের সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক। এ সম্পর্ক আজীবন অটুট থাকবে।   

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আন্ত: বিভাগ ও জরুরি বিভাগের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার (১২ জানুয়ারি) সকাল ১০ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আন্ত: বিভাগ ও জরুরি বিভাগের শুভ উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মিলনায়তনে আয়োজিত উদ্বোধনী সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সমরজিৎ সিংহ। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ ইমরান হোসাইনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের বিভাগীয় পরিচালক ডাঃ দেবপদ রায়, মৌলভীবাজার সিভিল সার্জন ডাঃ শাহজাহান কবির চৌধুরী, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসীম চন্দ্র বনিক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বদরুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গির হোসেন সরদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, পশ্চিম জুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাস, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার আব্দুল মতিন, যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস শহীদ চৌধুরী খুশি, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মামুনুর রশিদ সাজু, যুবলীগ নেতা আহমদ কামাল অহিদ, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল কাদির দারা, জাকির আহমদ কালা, আব্দুস ছালাম প্রমূখ।

জুড়ী টাইমস সংবাদঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১১ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় জুড়ী উপজেলা কমপ্লেক্সের সামনে থেকে বের হয়ে আনন্দ শোভাযাত্রাটি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। আনন্দ শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে “বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন দর্শন” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার অসীম চন্দ্র বনিক এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম এর উপস্থাপনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অরুন চন্দ্র দাস, উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন, জুড়ী থানার ওসি তদন্ত আমিনুল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মন্তোষ কুমার বেদনাথ, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার রাকেশ পাল, জুড়ী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিতাংশু শেখর দাস, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ সাজু, জুড়ী উপজেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জুড়ী টাইমস এর প্রতিষ্ঠাতা সাইফুল ইসলাম সুমন প্রমুখ।

পরবর্তীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে শিশু কিশোরদের অংশগ্রহণে “বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ” শীর্ষক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। অপরদিকে বিকেল ৪টা থেকে শুরু হয়ে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।  বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস ও বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরা হয় অনুষ্ঠানে। রাতে বর্ণিল আতশবাজিও করা হয়। 

আনন্দ শোভাযাত্রায় ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার, জুড়ী উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মো. তাজুল ইসলাম, পশ্চিম জুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাস, পূর্ব জুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন আহমদ, গোয়ালবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন আহমদ লেমন, জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, সাগরনাল ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সমরজিৎ সিংহ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ হৈমন্তিকা পাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডাঃ শহীদুল আমিন, মেডিকেল অফিসার ডাঃ প্রিয়জ্যোতি ঘোষ অনিক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম সাদেক, উপজেলা মৎস্য অফিসার মীর আলতাফ হোসাইন, মক্তদীর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসহাক আলী, গ্রাম উন্নয়ন কার্যক্রম (গ্রাউক) এর চেয়ারম্যান অশোক রঞ্জন পালসহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ।

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে সারাদেশের মতো মৌলভীবাজারের জুড়ীতেও শুরু হয়েছে ক্ষণগণনা। শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বিকেল ৫টায় জুড়ী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে উপজেলা কমপ্লেক্স চত্বরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনার জন্য একটি কাউন্টডাউন মঞ্চের উদ্বোধন করা হয়েছে।

এরপূর্বে ঢাকার তেওগাঁওস্থ জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে কেন্দ্রীয় কাউন্টডাউন মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান জুড়ী উপজেলা কমপ্লেক্স অডিটোরিয়ামে বড় পর্দায় প্রদর্শন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে কেন্দ্রীয় কাউন্টডাউন মঞ্চের উদ্বোধন করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধুর ছোট কন্যা শেখ রেহানা ও দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় প্রমুখ।

জুড়ীতে কাউন্টডাউন (ক্ষণগণনা) মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক, জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার অসীম চন্দ্র বনিক, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সমরজিৎ সিংহ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ হৈমন্তিকা পাল, উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন, জুড়ী থানার ওসি তদন্ত আমিনুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডাঃ শহীদুল আমিন, মেডিকেল অফিসার ডাঃ প্রিয়জ্যোতি ঘোষ অনিক, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মন্তোষ কুমার বেদনাথ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম সাদেক, উপজেলা মৎস্য অফিসার মীর আলতাফ হোসাইন, পশ্চিম জুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাস, পূর্ব জুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন আহমদ, গোয়ালবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন আহমদ লেমন, জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, সাগরনাল ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত, জুড়ী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিতাংশু শেখর দাস, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ সাজু, গ্রাম উন্নয়ন কার্যক্রম (গ্রাউক) এর চেয়ারম্যান অশোক রঞ্জন পালসহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ।

এদিকে উপজেলা কমপ্লেক্স অডিটোরিয়ামে বিকাল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।